Blog

সমাজ বা দেশের জন্য কিছু করতে হলে সবসময় সংগঠন আবশ্যক- এটা সত্যি নয়।
চাইলে যে কেউ নিজ থেকে ভাল কিছু শুরু করে দিতে পারেন। রাস্তায় ময়লা না ফেলে কিংবা কোনও ময়লা মাঝখানে থাকলে সেটা সরিয়ে দিতে গ্রুপের দরকার হয় না। নিজ থেকেই এসব ছোটখাটো ভাল কাজ করা যায়। আর এগুলা অনেক বেশি ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচারণার বিষয়ও না। অনেক সময় কয়েকজনের সমন্বয়ের অভাবে প্ল্যানিং করেও কাজ করা হয় না।

আপনি যদি খুব সামান্য একটা কাজ করতে পারেন সেই সাথে আপনার খুব কাছের ২/৩ জন বন্ধুকে করতে উৎসাহ দিতে পারেন তাহলেই হবে। আবার অনেক ক্ষেত্রে এসব কাজে মুখে না বলেই কাছের মানুষকে অনুপ্রাণিত করতে পারেন তাদের সামনে নিজে এই কাজ গুলো বার বার করার মাধ্যমে।

নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, জীবনে যেসব ভাল কাজ দলবদ্ধভাবে করতে চেয়েছি সেগুলার বেশিরভাগই সম্পূর্ণভাবে শেষ করতে পারিনি। হয়তো এতে আমাদের নিজেদের ভুল ছিল কিন্তু একক প্রচেষ্টায় যত জনকে দেখেছি তাদের মধ্যে কেউ বিফল হয়নি। কারণ একক প্রচেষ্টায় কাজ করতে অন্যের সিদ্ধান্তের জন্য বসে থাকতে হয়না। “মন চেয়েছে ব্যাস করে ফেললাম”- টাইপ হয়। তাই বলে এটা বলছি না যে দলবদ্ধভাবে কিছু করবো না কিন্তু  ভাল কাজে সবসময় একটা কথা মনে রাখতে হয় “Do it yourself” আর শুরু সময় আরেকটা কথা মাথায় রাখা উচিত “Why not me?”

অনেকেই দেখিয়ে কাজ করাকে “শো অফ” ধরে নেন আর হ্যাঁ এটা অনেকক্ষেত্রেই ঠিক। একটি উদাহরণ দেয়া যায় ধরুন, একটা এলাকায় কিছু তরুন বন্যা দুর্গতদের জন্য ত্রাণ সংগ্রহ করছে। বেশিরভাগ এলাকাতেই এসব কাজে খাজনার চেয়ে বাজনা বেশি হয়ে হয়।  কেননা ত্রাণের কাপড় কিংবা টাকা পয়সা উঠানোর পর সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে সেগুলা একেবারে দরকারি যায়গায় পৌঁছে দেয়া আর সেখানেই বেশি খরচ করে ফেলা হয়। আবার এসব কাজের প্রচারণা বাবদ আরও কিছু খরচ যায় যেটা আসলে তেমন কারো চোখে পড়ে না।
আমার নিজের চোখে দেখা কিছু ইভেন্টে প্রমাণ পেয়েছি ছেলেপুলে বন্যার্ত মানুষদের সাহায্য করতে গিয়ে নিজেরা পিকনিক করে আসছে। মানে সাহায্য করা শুধু উপলক্ষ তাদের কাছে। যাই হোক এই ব্যাপারে বেশি খারাপ লাগেনা কারণ খুব কম করে হলেও কিছু মানুষের সাহায্য তো করা হচ্ছে! এটাই বা কম কিসের।

উপরের উদাহরণ দেয়ার কারণ হচ্ছে যদি নিজেরা নিজেদের জায়গা থেকে একেবারে কিছু করে হলেও ভাল কাজ বা সমাজের প্রতি কন্ট্রিবিউশন শুরু করি তাহলে সবার অজান্তেই একটা প্রোমোশন শুরু হবে, আপনার কাছের মানুষজন দেখবে। মুখে তাদেরকে না বললেও তারা উপলব্ধি করবে আর নিজেরাও শুরু করবে। আর যাদেরকে মুখে বলতে পারবেন তাদেরকে তো বলবেনই তবে অবশই পজেটিভ পয়েন্ট অব ভিউতে।

Let’s Start Good Works

স্ট্যাটাসটি পড়ে অনেকেই আমাকে উল্টো প্রশ্ন করতে পারেন যে, আমি শুধু স্ট্যাটাসই লিখছি নাকি নিজেও কিছু করছি? সেক্ষেত্রে ভেবে দেখুন, আমার এই লেখাটা পড়ে যদি একজনও একটি মাত্র ভাল কাজ করে সেটা যত ছোটই হোক না কেন, তাহলেই আমি সার্থক আর আমি নিজ জায়গা থেকে কিছু করার চেষ্টা করে অন্তত কিছুটা হলেও সফল।

সবশেষে কথা একটাই, “ভাল কাজ শুরু হোক আমার আপনার থেকেই সেটা যত ক্ষুদ্রই হোক না কেন।”

You may also like

Memory of Ibrahim
Help others!

Leave a Comment