গত ২০১১ সালের শবে বরাতের রাতে আমিনবাজারের আমবাসা গ্রামে ৬জন ছাত্র কে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। সেখানে আমাদের খুব ক্লোজ একটা ফ্রেন্ড ছিল।

আমাদের ইব্রাহিম। আদর করে ওকে আমরা ডাকতাম ‘লেবু’ বলে। অনেক ভাল ছিল ছেলেটা।
অনেক বেশি বন্ধুপরায়ন, কল দিলে একেবারে ২০/২৫ মিনিটের কমে কথা হতো না। আমরা ইন্টারে একসাথে ছিলাম। ফার্স্ট ইয়ারে ওর জন্মদিনের পার্টিতে না যাওয়ায় অনেক অভিমান করে ছিল। সেকেন্ড ইয়ারে সবাই মিলে মজা করেছিলাম ওর জন্মদিনে।

ইন্টার শেষে আলাদা আলাদা কলেজে ভর্তি হওয়ায় অনেকের সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়, কিন্তু লেবুর সাথে সবসময় কথা হতো।  ২০১১ সালের ১৬ই জানুয়ারি বাংলা কলেজে একটা মিটাপ করেছিলাম আমরা। সেখানেই লেবুর সাথে লাস্টবারের মত দেখা হয় আমাদের 🙁

হত্যাকাণ্ডের রাত সাড়ে ১০টার সময় ওই আমাকে কল করেছিল, বলেছিল সবাইকে নিয়ে ওদের
এলাকায় যেতে। কে জানত সেটাই ওর সাথে আমার লাস্ট কথা হবে … :'(

ইব্রাহিম তো সামান্য স্মোকিং পর্যন্ত করতো না, কিন্তু ওই মানুষরূপী পশু সন্ত্রাসীরা ওদের কে ডাকাত নাম বলে মারলো!  ওর সাথের পুলাপান হয়তো করতো। একেবারে আসল ঘটনা আল্লাহ্‌ পাক ভাল জানেন। যতদূর জানতে পেরেছিলাম ওরা সেদিন রাতে কিছু সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেখেছিল আর ওই শয়তানরা কোনও সাক্ষী রাখেনি। আমীনবাজারের ওই হত্যাকান্ডের কোনও বিচার আজো হয়েছে কি? আমি তো জানি না।

একটা জিনিস চিন্তা করলেই গায়ে কাঁটা দিয়ে উঠে… গুলি করে হত্যা, ছুরি দিয়ে মেরে ফেলা এসবের মৃত্যুর চেয়ে ধের কঠিন একটা ব্যাপার হল কাউকে প্রহার করতে করতে মেরে ফেলা।
কি পরিমাণ কষ্ট পেয়েছিল আমাদের সেই বন্ধুটি… পরদিন বিকেলে আমরা কেউই ওর চেহারা দেখে চিন্তে পারি নাই :'( এমনভাবে মেরেছিল ওই পাষণ্ড গুলা :/

দুয়া করি দোস্ত, তুই যেখানেই থাকিস না কেন আল্লাহ্‌ পাক যেন তোকে অনেক অনেক শান্তিতে রাখেন। তোকে আমরা অনেক অনেক অনেক মিস করি :'(  আর যারা তোদের সাথে অন্যায়, অবিচার করেছে তাদের উপর লানত বর্ষিত হোক। আমীন। সুম্মা আমীন।

Leave a comment