দেশে এখন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জোয়ার বইছে!

একসময় এমএলএম বলতে মানুষ বুঝতোঃ ডেস্টিনি!
এরপর, অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং বলতেই বুঝতোঃ ওডেস্ক!
আর এখন হুজুগে পাবলিক অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলতেই বুঝেঃ ক্লিকসিউর!

এই বছরের শুরুর দিকে আমি Rifat Ahmed ভাইএর ভিডিও দেখে কিছু মার্কেটপ্লেসে কাজ শুরু করেছিলাম।  যেহেতু রিফাত ভাই নিজের টিউটোরিয়ালে ক্লিকসিউর মার্কেটপ্লেসের বর্ণনা করেছিলেন তাই স্বভাবতই অনেকেই নিজের শুরুটা ক্লিকসিউর দিয়েই করেছিলেন। কিন্তু তখনকার ক্লিকসিউর আর আজকের ক্লিকসিউর নেই!

বাঙালিদের অনবরত স্প্যামিং এর কারণে সেখানে কিছু নতুন ভেন্ডর শুরু করেছে “ভয়েড” নামের স্ক্যামিং! পেইড ট্র্যাফিক আর একেবারে টার্গেটেড ভিজিটর ইউজ করেও অনেকেই ভয়েডের শিকার হচ্ছেন পেমেন্ট কনফার্ম হবার ঠিক ৩/৪ দিন আগে। যেটার কোনও উত্তর নেই! রিফাত ভাই নিজেও সবাইকে ক্লিকসিউরে কাজ করতে সাবধান করে দিয়েছেন!!!

গত রমজান থেকে আমারও প্রায় ২০২৫$ ভয়েড হয়েছে ক্লিকসিউরে আর এর সবগুলাই কমিশন ছিল পেইড ট্র্যাফিকের সেল থেকে। তখন থেকে খোঁজ নিয়ে দেখেছি আমার মত অনেকেই ভয়েড খেয়েছেন, আরও অনেক বেশি পরিমাণ। চিন্তা করলেও গা শিরশির করবে এত বড় বড় এমাউন্ট! এসব ভয়েডকে মূলত বিজনেসে লস বলতে চাই না আমি, কারণ ক্যাম্পেইনে লস তখন হবে যখন পর্যাপ্ত পরিমাণ রিস্ক নেয়ার পরও মানে ভিজিটর ক্লিক আসার পরও কোনও কনভার্ট হবেনা। কিন্তু ভয়েড আসলে, সেল হবার পরে কমিশন কনফার্ম পেমেন্ট হবার আগে নিষ্ঠুর প্রতারণা!

নতুন যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে চাচ্ছেন তারা ক্লিকসিউর মার্কেটপ্লেস এড়িয়ে চলুন। যদি ফ্রি বা অরগানিক ট্র্যাফিকে অনেক কষ্ট কাজ করে ভয়েড দেখবেন তখন মনোবল অনেকটাই নষ্ট হয়ে যাবে আর যদি পেইডে কাজ করে ভয়েডে ধরা খান তখন পকেটের টাকা জলে যাবে। এর চেয়ে আপনারা ক্লিকব্যাংকে কাজ করুন। একটু অ্যাডভানস হলে জেভেজুতে শুরু করুন। প্রথম দিকেই অনেক বেশি টাকা ইঙ্কামের চিন্তা না করে আসতে আসতে বিজনেস ডেভেলপ করুন। পেইড ট্র্যাফিকে ইনভেস্ট করার আগে ট্র্যাফিক আর ট্র্যাফিক সোর্স নিয়ে স্টাডি করুন, প্রোডাক্ট ট্রেন্ড বুঝার চেষ্টা করুন। ভিজিটর ইন্টেনশন আর মার্কেটে প্রোডাক্টের কাস্টমার সেগমেন্টেশান করুন এরপর ভাল সেলস ফানেল বানান।

এগুলা আমার নিজের অভিজ্ঞতা। মনে রাখবেন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একটা বিজনেস, আর শুধু ইনভেস্ট এবিলিটি থাকলেই আপনি বিজনেস করতে পারবেন না। বিজনেস করতে হলে আপনাকে অনেক শ্রম দিতে হবে, আর ইনভেস্টমেন্ট নিয়ে রিস্ক ক্যারি করতে হবে। অনেকেই দেখছি বেশি স্টাডি না করে বেশ দামি দামি কিছু প্রোডাক্ট নিয়ে পেইড ট্র্যাফিকে ইনভেস্ট করার কথা বলছেন। ভাই, এটা একটা জুয়া না। আর পেইড ট্র্যাফিকে কাজ করা মানেই প্রফিট না। পুরা ক্যাম্পেইনে খুব ছোট্ট একটা ভুল আপনার পুরা ক্যাম্পেইন লস করে দিতে পারে। সময় দিন, অভিজ্ঞতা নিয়েন নিন, আশা করি সফল হবেন। আপনাদের সবার জন্যই শুভকামনা। আমার জন্য দুয়া করবেন।

Leave a comment

niravasif

হ্যালো, আমি মুহম্মদ আসিফ। একজন ডিজিটাল মার্কেটিং লার্নার এবং এক্সপেরিয়েন্স শেয়ারার। কাজ করছি ৫ বছর ধরে Digital Marketing এর বিভিন্ন অংশ নিয়ে। মাঝে মাঝে নিজের শিক্ষা এবং অভিজ্ঞতা থেকে আমার এই NiravAsif Blog ব্লগে কিছু রিসোর্স শেয়ার করি। UY LAB এর Head of Digital Marketing হিসেবে কাজ করছি। সেই সাথে Affiliate Marketing, Print On Design, Amazon Affiliate, CPA Marketing, Video Marketing নিয়ে কাজ করছি।

Leave a comment